বড়লোক হওয়ার আগের মত মানুষ হও

বড়লোক হওয়ার আগে বড় মানুষ হও। 

আপনি বিশ্বাস করেন কেউ কিছু পাওয়ার উপযুক্ত হলে জগতের কোনো শক্তি তাকে বঞ্চিত করতে পারেনা , আমি কিন্তু জানি এবং বিশ্বাসও করি। 

নবজাগরণের পথিকৃত চিরযৌবনে উদ্দিপ্ত স্বামী বিবেকানন্দের কিছু বিখ্যাত বাণী কিছু কথা আমি আজকে আপনাদেরকে জানাবো। 

১. তিনি বলেছিলেন জগতে পাপ বলে যদি কিছু থাকে দুর্বলতাই হলো সেই পাপ। নিজের জীবনের সব রকমের দুর্বলতা ত্যাগ করো। দুর্বলতাই হলো মৃত্যু, দুর্বলতাই পাপ। 

২. যা পারো যতটুকু পারো নিজের মনকে বলো সেটা করতে নিজে থেকে করো সেটা, কারোর ওপর বিশ্বাস করো না কারো উপর ভরসা করোনা তাহলে তুমি শুধুই ঠকবে। 

৩. সাহসী লোকেরাই কেবল বড় বড় কাজ করতে পারে আর নিজের স্বপ্নকে পূরণ করতে পারে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছতে পারে। 

৪. যে মানুষ বলে যে তার আর শেখার কিছুই নেই সে জীবনের সব অধ্যায় পরে নিয়েছে শিখে নিয়েছে তার মানে এটাই যে সে মানুষ টি মরতে বসেছে। যতদিন বেঁচে আছো শুধু শিখে যাও। 

৬. একদিন এবার এক বছরে কখনো সফলতা আশা করোনা কখনো নিজের লক্ষ্যে পৌঁছে গেছো সেই আশা করোনা।

৭. সবসময় শ্রেষ্ঠ আদর্শ কে ধরে রাখো। সব সময় এটা ভাববে যে এর থেকেও ভালো কিছু তোমার জন্য অপেক্ষা করছে।

৮. আমাদের জাতের কোন ভর্সা নেই। কারো মাথায় একটা স্বাধীন চিন্তা ভাবনা আসেনা। সেই ছেঁড়া কাঁথা নিয়ে টানাটানি। 

৯. উঁচুতে উঠতে গেলে তোমার ভেতরের অহংকারকে টেনে বাইরে বার করো, হালকা হয়, কারন তারাই উপরে উঠতে পারে যারা মন থেকে হালকা হয়ে যায়। 

১০. যদি তোমার নিজের ওপর বিশ্বাস আনতে না পারো তাহলে কোনদিনও তুমি ঈশ্বরের উপর বিশ্বাস করতে পারবে না। 

১১. ঘৃণার ক্ষমতার থেকে প্রেমের ক্ষমতা অনেক বেশি। 

১২. পবিত্র ও নিঃশর্ত হওয়ার চেষ্টা করেন তার মধ্যে রয়েছে সমস্ত ধর্ম। 

১৩. জগতের এখন একান্ত প্রয়োজন হল চরিত্র কারণ জগত এখন তাদেরকেই চাই যাদের জীবনে প্রেম রয়েছে কিন্তু কোন স্বার্থ নেই। 

১৪. তিনি বলেছেন :- আহার কর পরিমিত, ধ্যান করো নিয়মিত, বই পড়ো মনোযোগ দিয়ে, চিন্তা করো গভীর ভাবে, ব্যায়াম করুন নিয়মিত, আর পরিকল্পনা করো দূরদৃষ্টির সাথে। সেবা করো তৎপরতার সাথে, দান করো নির্লিপ্ত ভাবে, ভালোবাসো নিঃস্বার্থভাবে, ব্যয় করো বিবেচনার সাথে, তর্ক করো যুক্তির সাথে, কথা বল সংক্ষেপে, কাজ করো নির্ভীকভাবে, এগিয়ে চলো সত্য আর ভালোবাসা নিয়ে। শুধু বড়লোক হও না বড় মানুষ হও। 

তিনি একটি গুরুত্বপূর্ণ কথা বলেছেন :- কাপুরুষরা মিথ্যে কথা বলে পাপ করে কিন্তু বীর কখনো পাপ করে না মিথ্যা কথা বলে না, “হে বীর হৃদয় যুবকবৃন্দ তুমি এগিয়ে যাও, লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষ ক্রমশ দূরে যাচ্ছে তাদেরকে উদ্ধার, মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত এটাই আমাদের মূলমন্ত্র। যে অপরকে স্বাধীনতা দিতে পারেনা সে কখনো নিজের স্বাধীনতা পাওয়ার যোগ্য নয়। দাসেরা শক্তি চাই অপরকে দাস বানিয়ে রাখার জন্য। 

এবার জেগে ওঠো সচেতন হও নিজের লক্ষ্যে পৌঁছানো না পর্যন্ত থেমো না। যারা তোমাকে সাহায্য করেছে তাদেরকে কখনো ভুলে যেওনা, যারা তোমাকে ভালোবেসেছে তাদেরকে কখনো ঘৃণা করো না, যারা তোমাকে বিশ্বাস করেছে তাদের কখনো ঠকিয়ে না। 

নিজের লক্ষ্যে পৌঁছানোর আগে আগে নিজে একজন ভাল মানুষ হয় যখন আপনি অপরকে ভালোবাসতে শিখবে অপরকে বিশ্বাস করতে শিখবেন এবং তাদের সম্মান করতে শিখবে তখন নিজের লক্ষ্যে পৌঁছতে আরও সক্ষম হয়ে উঠবে। 

আর একটা কথা মনে রাখবে “ বড়লোক হওয়ার আগে বড় মানুষ হও। ”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *