ফোকাস রাখুন

লক্ষ্যের পেছনে অক্লান্ত পরিশ্রম করেও যখন ব্যর্থতার তিক্ত স্বাদ পেতে হয় তখন খুবই দুঃখ পেতে। তাতে দুঃখ পাওয়ার কিছু নেই এই কঠোর পরিশ্রমে হোঁচট খেয়ে হয়ে উঠেছে তুমি আরো শক্তিশালী, এটাই তো সত্যি কারের জয়। 

তুমি ভুল করছ এতে লজ্জা পাওয়ার কিছু নেই, বারবার ভুল করো এই জিনিসটি বারবার বলে দেয় যে তুমি হাল ছাড়োনি তুমি চেষ্টা করে যাচ্ছে। মনে কর সেই Alva Edison এর কথা, যিনি 999 বার ব্যর্থ হয়েছিলেন কিন্তু তাও তিনি হাল ছাড়েনি এবং তিনি শেষ পর্যন্ত জয়ী হয়েছিলেন। জীবনে আমি হাজার হাজার বার ভুল করেছি হাজার হাজার বার ব্যর্থ হয়েছি হোঁচট খেয়েছে কিন্তু সেটি নিয়ে আমি গর্বিত। প্রত্যেকটা ভুল প্রত্যেক বার হোঁচট খাওয়া আমাকে গড়ে তুলেছে আরো শক্তিশালী, করেছে আরও পরিণত। প্রত্যেকটা জিনিসেরই নিজস্ব একটা সুন্দর্য আছে। তুমি কি সেটা অনুভব করতে জানো? এই ছল মলে রোদ যতদিন হাসবেই, এই পাখির কলকাকলি, এই গাছের হাওয়ার শব্দ ঝিরিঝিরি যতদিন শুনবো, ভোরের খোলা হাওয়ায় শ্বাস নিতে পারবো কি করে জীবনকে ভালো না বেসে আমি থাকতে পারি। আমরা অনেক রকম ভুল করে যাই, একটা আন্তরিকতার ছোঁয়া, একটু প্রাঞ্চল হাসি, কিছু সুন্দর কথা, আর সুন্দর ব্যবহার, কি অসম্ভব ক্ষমতা রয়েছে যে একটি মানুষকে সম্পূর্ণ বদলে দিতে পারে।

খুব শিগগিরই অসম্ভব কিছু একটা করতে চলেছে ঘটতে চলেছে তোমার জীবনে। তুমি কি সেটি অনুভব করতে পারো? তুমি কি দেখতে পাচ্ছো তোমার জীবনে পরিবর্তন আসতে চলেছে? তবে কেন তুমি ভেঙে পড়েছো? তুমি যখন সবাইকে ভালোবাসতে শিখবে, সবার কল্যাণে কাজ করতে থাকবে জীবনের শেষ পর্যায়ে গিয়ে দেখবে মানুষের ভালোবাসা তুমি অনেক পেয়েছো। বিশ্বাস করো তার থেকে পরিতৃপ্ত জীবনে আর কিছু হতে পারে না। জীবনটা উপভোগ করতে হয় প্রতিদিন মূহুর্তে। প্রতিটি ছোট ছোট স্মৃতি আনন্দের উপলক্ষে যত বেশি হাসবে যত বেশি অভিযোগ করবে জীবনটা হয়ে উঠবে তত সুখের তত পরিতৃপ্তের। তুমি একদিন অনুভব করে দেখো, তুমি একদিন বিশ্বাস করে দেখো আমার প্রতিটা কথা প্রতিটা শব্দ তোমার মনের অক্ষরে অক্ষরে পালিত হবে। আমারই শব্দের প্রত্যেকটা সত্যতা তুমি তোমার মনের মধ্যে বুঝতে পারবে। পৃথিবীর সুন্দরতম জিনিসগুলো হাতের ছোঁয়া যায় না চোখে দেখা যায় না। সেগুলো হৃদয় দিয়ে অনুভব করতে হয়। সেই তিনটা জিনিস কি জানো সেটি হলো ভালোবাসা, দয়া এবং আন্তরিকতা। 

বাচার মত বাচতে জানলে জীবনটা অসম্ভব রোমাঞ্চকর একটি অভিযান। আর একদম ঝুঁকিবিহীন জীবন একটা মুরগির খোয়ারে ঠিক ধুঁকে ধুঁকে মরে যাওয়ার মত। যার নেশা আর পেশা মিলে যায় তার থেকে সৌভাগ্যবান কেউ হতে পারে না। তাই মন দিয়ে শুধু কাজ করতে থাকো যদি জীবনে সফল হতে চাও জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে চাও। তুমি যদি এখনই তোমার জীবনের স্বপ্নগুলো সত্যি করার পেছনেই ছুটে না চলো, একদিন তোমাকে কাজ করতে হবে অন্যের অধীনে তাদের স্বপ্ন গুলোকে পূরণ করার।

কী বলা হচ্ছে সেটি সুন্দর হৃদয় ধারণা করো কি বলছে সেটা বিবেচ্য বিষয় নয়। পথের ভিখারী ও কখনো কখনো তোমাকে জীবনে কয়েকটি সঠিক পরামর্শ দিতে পারে শুধু হৃদয় দিয়ে অনুভব করো, কারুর পোশাক-পরিচ্ছদ দেখে নয়। যদি তোমার কোন শত্রু তোমাকে ভাল মন্তব্য করে ভালো জ্ঞান দেয় তাহলে তাকে তুমি মাথায় করে নাও। ব্যর্থতা হয়েছে মানে ব্যর্থতার কিসের জন্য হয়েছে কার কারনে হয়েছে কি করে হয়েছে সেগুলো জানতে চাইবে না? তুমি ব্যর্থ হলে সেই যন্ত্রণা তোমাকে একাই সহ্য করতে হবে কেউ তোমার পাশে এসে দাঁড়াবে না। তাই কখনো অজুহাত বানাবে না অন্যকে সুযোগ দেবে না। তোমার জীবনটাকে তুমি নিয়ন্ত্রণ কর। তুমি অবশ্যই জিতবে।

এই বিশাল মহাজগতের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বালুকণা থেকেও ছোটো এই পৃথিবী তার মাঝে ক্ষণিকের এই জীবন। জগতের বুকে একটি আছো না কেটেই তুমি হারিয়ে যাবে কবে। তাই যতক্ষণ বেঁচে আছো আনন্দ উপভোগ করো। বাঁচার মতো বাঁচো আনন্দ আর স্বপ্ন নিয়ে। দাম্ভিক হওয়া সহজ, বিনয়ী হতে চাইলে প্রয়োজন অস্বাভাবিক আত্মবিশ্বাস আর মানসিক শক্তির। 

পৃথিবীর সবচেয়ে আনন্দের অনুভুতি হচ্ছে যখন তুমি তোমার স্বপ্ন তুমি তোমার লক্ষ্যকে পূরণ করেছো। পৃথিবী হচ্ছে একটি আয়নার মতো তুমি সবার সাথে যেভাবে ব্যবহার করবে যে মনোভাব পোষণ করবে সেটি তুমি তার থেকে ফেরত পাবে। ব্যর্থ হওয়া মানে হেরে যাওয়া নয় ব্যর্থ হওয়া মানে আবার নতুন করে শুরু করার একটি সুযোগ। আর ব্যর্থ হয়ে যাওয়ার পর হাল ছেড়ে দেওয়ার মানে হচ্ছে প্রকৃত হেরে যাওয়া। 

হযরত আলী বলেছেন “ ঘুমিয়ে কি কেটে যাবে এই জীবন ? ” জীবন হোক চঞ্চলতা দিয়ে এবং অনুপ্রাণিত হয় প্রত্যেকটা মূহুর্তে। বিশ্রাম নেওয়ার জন্য কবরের জীবন চিরকাল পড়ে রয়েছে। কিন্তু এখন জীবনে কিছু করো, জীবনকে ভালোবাসো। ভালোবাসায় কিছু উন্মাদনা থাকবেই কিন্তু সব উন্মাদনায় কিছু আন্তরিকতা মিশে থাকে। জীবনের দুঃখময় সময় অন্ধকার কখনো কখনো আমাদের জীবনের উজ্জ্বল দাঁর গুলি খুলে দেয়। তাই দূর সময় সতর্ক থাকুন, কখনো থেমে যেওনা এখনের যে তুমি কঠোর পরিশ্রম করে চলেছো এই পরিশ্রমই তোমায় ভবিষ্যতে বিজয়ীর খেতাব দেবে। সম্ভাবনা আর বিপদের হাতে হাত রেখে চলে তাই বলে কি সম্ভাবনা দাম না দিলে চলবে?

প্রত্যেকের জীবনে একটা গল্প আছে। অতীতে ফিরে গিয়ে গল্পের শুরুটা কখনো পরিবর্তন করা যায় না। কিন্তু কঠোর পরিশ্রমের দ্বারা গল্পের শেষটা তুমি সুন্দর করে সাজিয়ে নিতে পারো। কখনো ভেঙে পড়ো না পৃথিবীর যা কিছু হারিয়ে যায় অন্য কোন রূপে সেগুলো আবার ফিরে আসেআসে তার জীবনে। 

জীবনে অনেক বিষয় রয়েছে যেগুলো তোমার নিয়ন্ত্রণের বাইরে সেগুলো নিয়ে মাথা ঘামিয়ে তোমার কোন লাভ নেই, কারণ এর বাইরে ও তোমার হাতে হাজার হাজার জিনিস রয়েছে। সেগুলো নিয়েই তুমি বিজয়ীর খেতাব তৈরি করো। নিজের জীবন তৈরি করো নিজে সফল হও নিজে প্রতিষ্ঠিত হও। 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *