জেগে ওঠো

সফলতা সকলেই পেতে চায় কিন্তু সফলতা পাওয়ার জন্য যে কর্ম করতে হয় তা সকলে করতে চায় না। 

অন্ধবিশ্বাস যেখানে প্রবেশ করে ত্যাগ আর প্রতীক্ষা সেখান থেকে বেরিয়ে যায় । 

দয়া যন্ত্রণা সহ্য করতে শেখায় সহনশীলতা আর রাগ সব শেষ করতে বাধ্য করে। 

মনে রাখবে কাল যা রং ছিল আজ তা দাগ হয়ে যায়। 

যদি দোষ খুঁজতে হয় তাহলে নিজের মধ্যে খোঁজো আর যদি ভালো কিছু খুজতে হয় তাহলে অপরের মধ্যে খুঁজে নাও। 

যদি সুযোগ পেয়েও আত্মীয়দের সাথে মিলিত না হয় তাদের সাথে সময় না কাটাও তবে সময় তোমাকে আত্মীয়দের থেকে সরিয়ে দেবে। 

আজ তোমার জীবনে দুঃখ রয়েছে কালও থাকবে কিন্তু সুখ একদিন তো পাবে। কারণ উপরওয়ালা তোমারও তুমি কিন্তু কর্তব্য থেকে বিচ্যুত হয় ও না। 

সঙ্গে থেকেও যে ছলনা করবে তোমাকে ঠকাবে তার থেকে বড় শত্রু আর কেউ হয়না। 

একমাত্র বন্ধু তো সেই মানুষটির যে তোমার সঙ্গে থাকবে আর তোমার দোষ, তোমার ভুলগুলি তোমাকে বুঝিয়ে দেবে তোমাকে সেগুলো সংশোধন করিয়ে দেবে। 

যাদের ঘরে বড়দের কথা চলে না তাদের ঘরে উকিলের কথা শুনতে হয়। 

যার নিঃশ্বাস চলে না কেবলমাত্র সেই ব্যক্তি মৃত নয়, যার মধ্যে মনুষ্যত্ব নেই সে কি জীবিত ? 

যখন কষ্ট করতে আনন্দ হবে নিজের মন থেকে সেটা করবে তখন বুঝবে প্রকৃত বাচার অর্থ তুমি বুঝতে পেরেছ। 

যখন সবকিছু বদলে গেছে তখন চিন্তা করুন নিজেকে শুধু বদলে দাও। পরিস্থিতি বদলালেও যদি নিজেকে বদলে নাও দেখবে সব কিছুই আবার নতুন করে শুরু হয়েছে। 

পড়ে গেছ ? তো কি হয়েছে সেই তো পড়ে যায় যে চলতে শিখে। এখন শুধু পালা উঠে চলতে শুরু করার। 

যে অপরের মুখে হাসি দেখতে পছন্দ করে তার মুখের হাসি কখনো মুছে যায় না। জীবনে না জেতা জরুরী না হারা জরুরী শুধু শিখতে হবে আর এগিয়ে যেতে হবে। নিজের সফলতার চাবি অপরের কাছে রেখো না। কারণ সেই সফলতার চাবি সঠিক সময় তুমি তার থেকে পাবে না। 

জ্ঞানী ও জ্ঞানহীন ব্যক্তিদের মধ্যে পার্থক্য হল যে এই যে জ্ঞানহীন ব্যক্তিরা দুর্বলতাকে লুকিয়ে আনন্দ পায়, আর জ্ঞানী ব্যক্তিরা দুর্বলতাকে শেষ করে আনন্দ পায়। 

এটা কোন ব্যাপার নয় যে তুমি কতবার ভুল করেছো কী কী ভুল করেছ এটা জরুরী যে তুমি সেই ভুলগুলোকে শুধরে নিয়েছো কিনা। 

যদি তোমার কোন কাজ ভালো লাগে কোন দিকে না তাকিয়ে তুমি সেই কাজটি করতে শুরু করো। 

Give up করার মানে কিন্তু সবসময় এটা নয় যে তুমি দুর্বল প্রকৃতির , এটার মানে হল যে তুমি অনেক বেশি শক্তিশালী, অনেক বেশি বুদ্ধিমান, যে সেই সব ছেড়ে দিয়ে আগে অগ্রসর হতে চায়। 

যদি তুমি বাস্তবে সত্যিই কিছু করতে চাও তাহলে কোন না কোন রাস্তা তুমি ঠিকই পাবে। 

আর যদি কিছু করতে না চাও মন থেকে তাহলে অজুহাত তুমি ঠিকই খুঁজে পাবে। 

তুমি যদি জীবনকে নিজের মতো করে কাটাতে চাও তাহলে কোনদিন কারো বেশি ভক্ত হতে যাবে না, যতক্ষণ তুমি অন্যদের নিজের সমস্যা ও কঠিন পরিস্থিতির জন্য দায়ী করবে ততক্ষণ তুমি নিজের সমস্যাকে কখনোই কাটাতে পারবে না। 

নিজের জীবনের মূল্যবান সিদ্ধান্ত নিজেই নিতে শিখুন, তা না হলে তোমার জীবনের সেই সিদ্ধান্ত অন্য কেউ নিয়ে নেবে। 

দূর থেকে আমাদের সকল রাস্তা বন্ধ মনে হয়, তাই সমস্যার সামনে আসো দেখবে অনেক রাস্তা খুলে যাবে। 

যখন তুমি জন্মেছিলে তখন তুমি কেঁদেছিলে আর বাকি মানুষ এসেছিল আনন্দ পেয়েছিল তাই জীবনে এমন কিছু করো যাতে যখন তুমি মারা যাবে তখন তুমি হাসবে কিন্তু সবাই কাদবে।


Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *